সোমবার, নভেম্বর ৩০

কিস্তির টাকা না দেয়ায় গ্রাহককে মারধর

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় কিস্তির টাকা না দেয়ায় গ্রাহককে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (০৮ জুন) মির্জাগঞ্জ উপজেলার ইয়ার উদ্দীন খলিফার (র.) দরবারের বাবুর্চিখানায় এ ঘটনা ঘটে। তবে বুধবার (১০ জুন) এ ঘটনা জানাজানি হয়।

মারধরের শিকার গ্রাহক মো. মাজেদ সিকদার বলেন, আমি দরবারের বাবুর্চিখানায় স্বল্পবেতনে বাবুর্চি হিসেবে চাকরি করি। কয়েক মাস আগে মির্জাগঞ্জ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি থেকে ২০ হাজার টাকা ঋণ নিই। এরই মধ্যে পাঁচ হাজার টাকা পরিশোধ করি। এরপর থেকে সুদ পরিশোধ করতে আছি। কিন্তু আসল কমে না।

তিনি বলেন, প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালে ডিউটি ছিল। এ সময় সমিতির ঋণ কমিটির সভাপতি মো. আল আমিন হোসেন, সমিতির স্টাফ বেলাল ও নেছার আমার কর্মস্থলে এসে কিস্তির টাকা চান। আমি অনেক অনুনয়-বিনয় করলেও সমিতির সভাপতির মন গলেনি। তাদের কাছে আমি কয়েকদিন সময় চাইলে তারা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। একপর্যায়ে আল আমিনসহ তার দুই সহোযোগী বেলাল ও নেছার আমাকে মারধর করে বিবস্ত্র করে ফেলেন। এ নিয়ে দরবারের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি আমি।

এ বিষয়ে জানতে মির্জাগঞ্জ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির ঋণ কমিটির সভাপতি মো. আল আমিন হোসেনের মুঠোফোন নম্বরে একাধিকবার কল দিলেও রিসিভ করেননি। এজন্য তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। পরে তার বক্তব্য পাওয়া গেলে সংবাদে সংযুক্ত করা হবে।

তবে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মির্জাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশকে তদন্তপূর্বক এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছি।

জানতে চাইলে মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি এমআর শওকত আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, মারধরের শিকার বাবুর্চি তিনদিন আগে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। ইউএনও আমাদের কাছে তার অভিযোগ পাঠিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এখানে শেয়ার বোতাম