মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

করোনা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি ও টিকাদানে সহায়তা করবে ফেসবুক

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং টিকা নেওয়ার জন্য মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে সরকারের আইসিটি বিভাগের এটুআই, তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে প্রচারণা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে ফেসবুক। দেশে প্রতিরোধমূলক স্বাস্থ্য-সুরক্ষা চর্চা এবং টিকাদান নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই এর মূল লক্ষ্য।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে ফেসবুক জানায়, এই উদ্যোগের মধ্য দিয়ে সামাজিক যোগাযোগের এই মাধ্যমটি বাংলাদেশে কোভিড–১৯ টিকাদান কার্যক্রমে সহায়তা করতে নানা পদক্ষেপ নেবে। একইসঙ্গে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে যাবে। সঠিক ও প্রয়োজনীয় তথ্য মানুষ সহজে যেন পেতে পারে, সেজন্য ফেসবুকে রয়েছে কোভিড-১৯ ইনফরমেশন সেন্টার। এর মাধ্যমে বাংলা ভাষাতেই সব তথ্য পাওয়া যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ফেসবুকের কোভিড–১৯ ইনফরমেশন সেন্টারে মাস্ক পরা থেকে শুরু করে কীভাবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি ভালোভাবে মেনে চলা যায়, সে সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যাবে। এছাড়া ফেসবুকের মাধ্যমে www.corona.gov.bd সাইটে যেতে পারবে সহজে, যেখানে কোভিড-১৯ বিষয়ে সরকারের সর্বশেষ নির্দেশনা পাওয়া যাবে। নিউজফিড নোটিফিকেশনের মাধ্যমে ফেসবুক বাংলাদেশিদের আরও সহজে www.surokkha.gov.bd সাইটে গিয়ে টিকা নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে সাহায্য করবে। এছাড়া কোভিড–১৯ ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানা ভুল তথ্য চিহ্নিত করতে এবং এর প্রচার ঠেকাতে এই বছরে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে বাংলাদেশে জনশিক্ষামূলক কার্যক্রম (www.fightcovidmisinfo.com) শুরু করেছে ফেসবুক।

বাংলাদেশে ফেসবুকের পাবলিক পলিসি বিষয়ক কর্মকর্তা সাবহানাজ রশীদ দিয়া বলেন, ‘বিশ্বের অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষামূলক এবং টিকাদান বিষয়ক সচেতনতা গণমানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া খুব জরুরি।’ তিনি আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিষয়ক বিভিন্ন সংস্থা ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আমরা ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি, যাতে করে ফেসবুকের বিশাল নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়ে মানুষের কাছে নির্ভরযোগ্য তথ্য পৌঁছে দেওয়া যায়।’

বাংলাদেশে করোনা মহামারির শুরু থেকেই আইসিটি বিভাগ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে কোভিড-১৯ সম্পৃক্ত সুরক্ষা বার্তা প্রচারে কাজ করছে ফেসবুক।

এটুআই’র পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী বলেন, ‘ফেসবুককে সাহসী এই পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। টিকাদান কর্মসূচি, মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ক্যাম্পেইনকে আরও বেশি সংখ্যক নাগরিকের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার অংশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত।’


এখানে শেয়ার বোতাম