শনিবার, মে ৮
শীর্ষ সংবাদ

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির ৬ দফা প্রস্তাবনা

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 13
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় অবিলম্বে জেলা-উপজেলায় ফিল্ড হাসপাতাল তৈরী করুন, সশস্ত্র বাহিনীর দক্ষতা কাজে লাগানো এবং আগামী ৭ দিনের মধ্যে দেড় কোটি পরিবারের কাছে খাদ্য ও নগদ অর্থ পৌঁছানোর ব্যবস্থা করাসহ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির ৬ দফা প্রস্তাবনা দিয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (০৭ এপ্রিল) সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সভায় দেশের করোনা ভাইরাস সংক্রমনের পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয় এবং এই সংকট মোকাবেলায় জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ৬ দফা প্রস্তাবনা দেওয়া হয়।

১. অনতিবিলম্বে করোনা শনাক্তকরণ ও করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য দেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলায় ‘ফিল্ড হাসপাতাল’ স্থাপন করতে হবে। প্রয়োজনীয় আইসিইউ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। পরীক্ষা ও চিকিৎসার খরচ রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে বহন করতে হবে। এই ব্যাপারে সশস্ত্র বাহিনীর দক্ষতা ও ক্ষীপ্রতা কাজে লাগাতে হবে।

২. সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি সকল বে-সরকারি হাসপাতাল বাধ্যতামূলক ভাবে চালু করতে হবে। ডাক্তার, নার্সসহ সকল চিকিৎসা সেবীদের পরিপূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তাদেরকে জীবনবীমার আওতায় নিয়ে আসতে হবে।

৩. আগামী ৭ দিনের মধ্যে দেশের শ্রমজীবী, দিনমজুর, বস্তিবাসী দেড় কোটি পরিবারের কাছে কমপক্ষে ১ মাসের খাবার ও নগদ টাকা পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতে হবে। এই ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী ও জনপ্রতিনিধিদেরকে কাজে লাগাতে হবে। আগামী ৬ মাস এই কার্যক্রম চালু রাখতে হবে।

৪. ত্রাণ তৎপরতায় চুরি, দুর্নীতি ও দলীয়করণ রোধে রাজনৈতিক দল, শ্রেণী পেশার নেতৃবৃন্দ ও এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে গণতদারকি কমিটি গঠন করতে হবে।

৫. আগামী ৬ মাসের জন্য রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, উচ্চ পদস্থ সরকারি-আধা সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তাদের বেতন ভাতা ২৫% কর্তন করে তা সরকারের করোনা তহবিলে জমা করতে হবে। বড় বড় ব্যবসায়ী গ্রুপ ও বিত্তবানদের উপর এই তহবিলের জন্য লেভী ধার্য ও তার প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে। কালো টাকা সরকারি কোষাগারে জমা প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে।

৬. বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কৃষি ও গ্রামীণ খাতকে অগ্রাধিকার দিয়ে এই খাতে কার্যকরী বহুমুখী প্রণোদনাও ভর্তুকী প্রদান নিশ্চিত করতে হবে। কৃষক যাতে এবার বোরো ধানের লাভজনক দাম পায় তা নিশ্চিত করতে হবে।

সভায় গৃহীত এক প্রস্তাবে দলের নেতা, কর্মী ও দরদীদেরকে করোনার জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলায় গণতান্ত্রিক ধারার সকল রাজনৈতিক দলের সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বেচ্ছাসেবীর মনোভাব নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয়।

পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, আবু হাসান টিপু ও আনছার আলী দুলাল।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 13
    Shares