বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩

‘কমিউনিটি কিচেন’’র ২৬তম দিনে জেলার বাম ও সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ

এখানে শেয়ার বোতাম

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:: করোনা দুর্যোগে ছিন্নমূল মানুষদের একবেলা খাবারের কর্মসূচি নারায়ণগঞ্জে বাসদের কমিউনিটি কিচেন কার্যক্রমের আজ ২৬ তম দিনে উপস্থিত ছিলেন জেলার বাম ও সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ।

আজ বুধবার (২৭ মে) ‘কমিউনিটি কিচেন’ কার্যক্রমের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বাসদ সমন্বক নিখিল দাস, শিশু সংগঠন খেলাঘর এর সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, গণসংহতি আন্দোলনের নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের জেলার সংগঠক প্রদীপ সরকার, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের জেলার সংগঠক আব্দুল খালেক প্রমুখ।

এ সময়ে নিখিল দাস বলেন, শহরের ছিন্নমূল ভাসমান মানুষ, প্রতিবন্ধী, পথশিশুদের অবস্থা শোচনীয়। লকডাউন পরিস্থিতির কারণে এরা প্রায় অনাহারে দিনযাপন করছে। এদের দুরাবস্থার কথা চিন্তা করে বাসদ জেলা শাখার উদ্যোগে আমাদের সীমিত সামর্থ্যরে মধ্যে শতাধিক মানুষের একবেলা খাবারের কার্যক্রম শুরু করা হয়। নিরন্ন মানুষের চাহিদা থাকায় এবং সমাজের বিবেকবান মানুষের সহায়তায় আমাদের জেলা কার্যালয়ের বাইরে আরও ২টি কার্যালয়ে মানুষের একবেলা আহারের ব্যবস্থা সম্প্রসারিত করা হয়। সমাজের মানুষের সহযোগিতায় আমরা দুর্যোগকালীন সময়ে নিরন্ন ভুখা-নাঙ্গা মানুষদের সহায়তার কাজ অব্যাহত রাখার প্রত্যাশা রাখি।

নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ কঠিন সংকটে দিনযাপন করছে। সরকারি অপ্রতুল ত্রাণ, প্রভাবশালীদের ত্রাণ আত্মসাৎ, দলীয়করণ ইত্যাদির কারণে দরিদ্র মানুষের অভাবের খুব সামান্যই পূরণ হয়েছে। এ দুর্যোগে বাসদের কমিউনিটি কিচেন কার্যক্রমের মাধ্যমে নিরন্ন
মানুষকে নিয়মিত একবেলা খাবার তুলে দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্তের স্বাক্ষর রেখেছে।

উল্লেখ্য ২ মে ২ নং রেলগেইটস্থ দলের জেলা কার্যালয়ে শুরু হওয়া কমিউনিটি কিচেন কার্যক্রমের আজ ২৬ তম দিন অতিবাহিত হয়েছে। শতাধিক মানুষকে একবেলা খাওয়ানোর মধ্যদিয়ে এ কার্যক্রম শুরু হয়। পরবর্তীতে এ কার্যক্রম সম্প্রসারিত করে দলের জেলা কার্যালয়ের বাইরে পাগলা আঞ্চলিক ও গাবতলী- পুলিশ লাইন কার্যালয়েও খাবার পরিবেশন হয়।


এখানে শেয়ার বোতাম