মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১

এমসি কলেজ ছাত্রবাসে তরুণীকে আটকে রেখে ছাত্রলীগ নেতাদের গণধর্ষণ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 224
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেট এম সি কলেজের ছাত্রাবাসে আটকে রেখে এক তরুণীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের নেতারা জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার সিলেটের টিলাগড় এলাকায় এম সি কলেজে বেড়াতে গিয়েছিলেন এক দম্পত্তি। এদের সিলেট মুরারী চাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাসে আটকে রাখে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক রনজিত সরকারের অনুসারি বলে জানা গেছে।

এমন অভিযোগ পেয়ে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছাত্রবাস থেকে ওই দম্পত্তিকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মধ্যরাতে ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি) তে ভর্তি করা হয়।

সিলেট শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাইয়ুম চৌধুরী জানান, এক দম্পতিকে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আটকে রাখা হয়েছে খবর পেয়ে পুলিশ ছাত্রবাসে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া নারীটি ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। পরে তাকে ওসমানী হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (গণমাধ্যম) জোর্তিময় সরকার বলেন, অভিযোগকারী নারীর স্বামীর বাড়ি সিলেটের দক্ষিণ সুরমা এলাকায়। তিনি অভিযোগ করেছেন, শুক্রবার বিকেলে তিনি স্ত্রীসহ টিলাগড় এলাকায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। এসময় ৪/৫ জন তরুণ তাদের জিম্মি করে ছাত্রাবাসের ভেতরে নিয়ে যায়। পরে ছাত্রাবাসের ভেতরের একটি ব্লকের রাস্তায় তার স্ত্রী ধর্ষণ করে।

এমসি কলেজের হোস্টেল সুপার জামাল উদ্দিন জানান, কয়েকজন ছাত্রাবাসে এক দম্পত্তিকে আটক রাখে বলে অভিযোগ পেয়েছি। পরে পুলিশ গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 224
    Shares