রবিবার, মে ১৬
শীর্ষ সংবাদ

ঈশ্বরদীতে বন্ধ হয়নি কারখানা, করোনা আতঙ্কে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 21
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: করোনাভাইরাস আতঙ্কে পাবনার ঈশ্বরদী ইপিজেড বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন শ্রমিকরা। শনিবার (২৮ শে মার্চ) বিকেলে ইপিজেডের এক হাজার শ্রমিক এ বিক্ষোভে অংশ নেন।

মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশের সব মিল-কারখানা ও সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ ঘোষণা করলেও ঈশ্বরদী ইপিজেডের কয়েকটি কারখানা চালু রয়েছে। এ অবস্থায় করোনা আতঙ্কে ইপিজেড বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ করেন শ্রমিকরা। ইপিজেডের হেয়ার স্টালা কোম্পানির এক হাজার শ্রমিক কাজ বন্ধ করে বিক্ষোভে অংশ নেন। এ সময় তারা ইপিজেড বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

এ ব্যাপারে ইপিজেড কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। সংশ্লিষ্ট সবার মোবাইল নম্বর বন্ধ রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, করোনাভাইরাসের কারণে ঈশ্বরদী ইপিজেডের কয়েকটি কোম্পানি কাজ বন্ধ ঘোষণা করে তাদের শ্রমিকদের ছুটি দেয়। কিন্তু বেশ কয়েকটি কোম্পানি এখনও কারখানা চালু রেখে শ্রমিকদের কাজ করাতে বাধ্য করছে। রাস্তায় কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল না করায় শ্রমিকদের ইপিজেডে আসা-যাওয়া করতে অনেক কষ্ট হয়। এছাড়া শ্রমিকরা একসঙ্গে কাজ করায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন।

ঈশ্বরদী ইপিজেডের শ্রমিকরা জানান, করোনা আতঙ্কের মাঝেও এখনও উইন্টার ফ্যাশন, তিয়ানি, এমজিএল, হেয়ার স্টালা, নাকানো কোম্পানি ইপিজেডে তাদের কারখানা চালু রেখেছে। অন্যদিকে রহিম আফরোজ, তোয়া, এবা, রুলিং বিডি, রেনেসা কোম্পানি কাজ বন্ধ ঘোষণা করে তাদের শ্রমিকদের ছুটি দিয়েছে।

শ্রমিকরা জানান, মহামারি করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবা থেকে তাদের জীবন বাঁচাতে অতি দ্রুত ঈশ্বরদী ইপিজেডের সব কারখানা বন্ধ ঘোষণা করতে হবে। ইপিজেড বন্ধ ঘোষণা না করলে আগামীতে তারা আরও বৃহৎ আন্দোলন গড়ে তুলবেন তারা।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 21
    Shares