শনিবার, মার্চ ৬
শীর্ষ সংবাদ

আবরার হত্যার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ছাত্র রাজনীতি বন্ধের প্রতিবাদে বগুড়ায় ছাত্র ফ্রন্টের সমাবেশ

এখানে শেয়ার বোতাম

বগুড়া প্রতিনিধি :: আবরার হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এবং ছাত্র রাজনীতি বন্ধের অপতৎপরতা বন্ধের দাবিসহ ৫ দফা দাবী জানিয়ে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের মানববন্ধন ও সমাবেশ।

আজ বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় ছাত্র ফ্রন্ট কলেজ শাখার উদ্যোগে এই মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

কলেজ সভাপতি পলাশ চন্দ্র বর্মনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নিয়তি সরকার নিতুর পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা সভাপতি ধনঞ্জয় বর্মন, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তা আক্তার মীম,সরকারি আজিজুল হক কলেজের রিতু খাতুন,বিপুল আহমেদ, আসাদুজ্জামান নূর প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, গত ৬ তারিখ রাতে বুয়েটে আবরারকে ডেকে নিয়ে নির্মমভাবে ছাত্র লীগের সন্ত্রাসীরা হত্যা করে এবং সন্ত্রাসীরা চিহ্নিত। বিচারহীনতার সংস্কৃতি পরিহার করে দ্রুত বিচার কাজ সম্পন্ন করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। অন্যদিকে ছাত্র রাজনীতি বন্ধের অপতৎপরতা চলছে। ৬১ র অধ্যাদেশ অনুযায়ী বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি আগে থেকেই নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু ছাত্র লীগের সন্ত্রাসী রাজনীতি কে প্রশাসন ঠাঁই দিয়েছে। ফলে তারা সেখানে গড়ে তুলেছে শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের সেল।

বক্তারা বলেন, অন্য কোন সংগঠনের কাজকে প্রশ্রয় দেয়া ত হত না,বরং নির্যাতন চালানো হত। ফলে চাঁদাবাজি, হল দখল,টেন্ডার বাজি যখন যা খুশি করতো ছাত্র লীগের সন্ত্রাসীরা আর তাদের আশ্রয় দাতা ছিল বুয়েট প্রশাসন। সাধারণ শিক্ষার্থীরাও দাবী তুলেছে ছাত্র লীগের সন্ত্রাসী রাজনীতি বন্ধের। তারা চাইনি বিরুধী দল, মতকে দমন করার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত নিতে। বুয়েট প্রশাসন এ অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যা আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে এক প্রতারণা। প্রশাসন বিরুধী দল,মতকে দমন করতে চায়। তারই অংশ হিসেবে আবরার কে হত্যা করে তার রাজনৈতিক দেশ প্রেমী চেতনাকে দমন করা হলো।এ অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত প্রশাসন নিতে পারে না।

ছাত্র নেতারা বলেন, বিচারহীনতার সংস্কৃতি চলছে দেশে অতীতেও সনি হত্যা হয়েছে , বকরকে হত্যা করা হয়েছে,বিশ্বজিৎ কে হত্যা করা হয়েছে তার ন্যায় বিচার হয়নি। ফলে নতুন করে এ সংস্কৃতি দেখতে যেন না হয় । ছাত্র রাজনীতি বন্ধ নয় বরং আওয়ামী সন্ত্রাসী ছাত্র লীগের সংগঠন নিষিদ্ধ করে, এক উন্নত, আদর্শ রাজনীতির বিপ্লবী ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে।


এখানে শেয়ার বোতাম