মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৩
শীর্ষ সংবাদ

আপনি সফল, মাননীয়া।

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 82
    Shares

শুভপ্রসাদ নন্দী মজুমদার::

যে পশ্চিমবঙ্গে হিন্দু মুসলিম কৃষক শ্রমিক পাশাপাশি দাঁড়িয়ে শ্রেণিশত্রুর বিরুদ্ধে লড়ত, আপনি সেখানে সফলতার সাথে ধর্মের বেড়া তুলে পরস্পরকে ভ্রাতৃঘাতী সংঘর্ষে দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন।

আপনার ভক্ত বুদ্ধিজীবী বিপ্লবী সমর্থকেরা আছেন যারা ১৯৯৮ থেকে ২০২১ এই ২৩ বছরের যাত্রাপথকে ভুলিয়ে দিতে চান।
দল গঠন করার কিছুদিনের মধ্যেই বিজেপির মন্ত্রীসভায় যোগ দিলেন। ২০০১ এ নাটক করে ছেড়ে আবার ২০০৩ এ ফিরে গেলেন বিজেপির জোটে।

২০০৫ এ লোকসভায় হুঙ্কার দিলেন বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের এনে সিপিআইএম ভোটার তালিকায় নাম ওঠাচ্ছে। স্পিকারের মুখের ওপর কাগজের বান্ডিল ছুঁড়ে মারার মত অভব্যতারও রেকর্ড করলেন।

এর আগে ২০০২ এ গণহত্যার রক্তে রাঙানো নরেন্দ্র মোদীর হাতে আপনি পুষ্পস্তবক তুলে দিলেন নির্বাচনে ‘অভূতপূর্ব’ জয়ের জন্য।
২০০৫ এ ঘোষণা করলেন বিজেপিকে ফ্রন্টে এনে বামফ্রন্টকে হটাবেন।

আপনার বিজেপি প্রেমে পশ্চিমবঙ্গ প্রথম বিজেপির কাউন্সিলার বিধায়ক সাংসদ দেখলো। কলকাতা দেখলো প্রথম বিজেপির ডেপুটি মেয়র।
ওই পর্যন্ত আপনি হিন্দুত্বের প্রেমে গদগদ। আরএসএস-কে দেশপ্রেমিক বলছেন, আরএসএস আপনাকে দুর্গা বলে ডাকল।

২০০৬/০৭ থেকে আপনি ঘুরে গেলেন ১৮০ ডিগ্রি। হিন্দুত্ব দিয়ে সিপিআইএমকে হঠাতে ব্যর্থ হয়ে এবার হাতে তুলে নিলেন মুসলিম কার্ড। ‘নন্দীগ্রামে মুসলিমদের জমি কেড়ে নিচ্ছে সিপিএম’ হয়ে উঠল আপনার রাজনীতির ভাষা। সাচ্চার কমিটির ভুল ব্যাখ্যা হল তুরূপের তাস। বন্ধু হয়ে গেলেন সিদ্দিকুল্লাহ, ইমাম বরকতী, ত্বহা সিদ্দিকী। তখন আপনি আর শুভেন্দু যুগল কন্ঠে বলেছেন, মুসলিমরা সিপিএম রাজত্বে বিপন্ন। আশ্চর্য হলেও সত্যি আপনার ওই ‘লড়াই’-এ গুটি গুটি পায়ে হাজির হয়েছিলেন আদবানি আর রাজনাথ সিং। ওরা চতুর। জানতেন, ইফ উইন্টার কামস, ক্যান স্প্রিং বি ফার বিহাইন্ড। আপনার যত্রতত্র ‘ইনশাআল্লাহ’ আর ‘বিসমিল্লাহর’ ধ্বনি সঙ্গে ইমাম ভাতার অজুহাতে বিজেপির বিভাজনের রাজনীতি প্রবেশ করল বাংলায়। এখন ফণা তুলেছে। আপনি ‘যে গরু দুধ দেয় তার পাশে থাকব’ বলে এখন বুঝেছেন আপনার ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে বিজেপি। আপনি এখন ‘বিসমিল্লাহ’ ছেড়ে চণ্ডীমন্ত্র ধরেছেন। আপনার নির্বাচনী ইশতেহারে এখন সংখ্যালঘু উন্নয়নের প্রসঙ্গ কর্পূরের মত উধাও। বোধহয় গরুর দুধ খাওয়া শেষ হয়ে গেছে।

ক্ষমতার রাজনীতির জন্যে আগুন নিয়ে খেলতে খেলতে এখন আপনি আর আপনার স্নেহের আঁচল থেকে জন্ম নেওয়া শুভেন্দু নন্দীগ্রামের গরিব মানুষকে ধর্মের নামে দুটো কাতারে দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন।

নন্দীগ্রামের মানুষের ভবিষ্যৎকে অন্ধকার করে সিংহাসনে চেপেছিলেন দুজনে।

আজ সব হারানোর ভয়ে দুজনে মিলেই তার ইতিহাসকে কলঙ্কিত করার কুনাট্যে মজেছেন।

আপনি সফল, মাননীয়া।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 82
    Shares