বুধবার, জানুয়ারি ২০

আন্দোলনরত তাজরীনের আহত শ্রমিক শারমিনের অকাল মৃত্যুতে বিভিন্ন সংগঠনের শোক

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 141
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক:: জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ৩ দফা দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালনরত তাজরীন অগ্নিকাণ্ডে আহত শ্রমিকদের একজন শারমিন বেগম (বয়স আনুমানিক ৩০) ২৫ নভেম্বর আনুমানিক সকাল সাড়ে নয়টায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

শারীরিক অবস্থা বেশ খারাপ থাকার কারণে প্রেসক্লাবের অবস্থান কর্মসূচি স্থান থেকে তাকে বাসায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়। আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরের বাসায় থাকা অবস্থায় গতকাল ২৫ নভেম্বর সকালে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় হাসপাতালে উদ্দেশ্যে আনার পথে মৃত্যুবরণ করেন।

গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলন এর সমন্বয়ক শামীম ইমাম, কেন্দ্রীয় পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মোশরেফা মিশু, বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এডভোকেট মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস এন্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোহাম্মদ ইয়াসিন,বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের সভাপতি শবনম হাফিজ, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপতি মাহামুদ হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মাসুদ রেজা, বাংলাদেশের সোয়েটার গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এএএম ফয়েজ হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক সভার সভাপতি শামসুজ্জোহা, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি অরবিন্দু বেপারী বিন্দু, গার্মেন্টস শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সংগঠক বিপ্লব ভট্টাচার্য এক যুক্ত বিবৃতিতে তাজরীনের আহত শ্রমিক শারমিনের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবার আত্মীয় স্বজনের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, তাজরীনের এই শ্রমিক যদি যথাসময়ে আইন অনুযায়ী তার ক্ষতিপূরণ পেতেন এবং তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা হতো তাহলে তাকে এভাবে অকালে মরতে হতো না। তাই এর দায়ভার মালিক এবং সরকারের। এরকম আরও একাধিক শ্রমিক রয়েছেন। যদি অবিলম্বে তাদের ন্যায্য ক্ষতিপূরণ না দেয়া হয়, দীর্ঘ মেয়াদী সুচিকিৎসার ব্যবস্থা না করা হয়- তাহলে তাদেরও একই পরিণতি হতে পারে।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের মধ্য দিয়ে আন্দোলনরত তাজরীন শ্রমিকদের বাস্তবসম্মত ক্ষতিপূরণ দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের জন্য সরকারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। সাথে সাথে শ্রমিক হত্যার জন্য দায়ী তাজরীনের মালিক দেলোয়ারকে অবিলম্বে গ্রেফতার ও তার সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন : তাজরীন অগ্নিকাণ্ডে আহত আন্দোলনরত শ্রমিক শারমিনের মৃত্যু

 


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 141
    Shares