রবিবার, নভেম্বর ২৯

আত্মহত্যা নয়, হত্যা করা হয় ডা. সুলতানাকে: দাবি পরিবারের

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: জামালপুরের মেলান্দহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক ভবন থেকে মরদেহ উদ্ধার হওয়া চিকিৎসক সুলতানা পারভীনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তার পরিবার।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টায় জামালপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ডা. সুলতানা পারভীনের বাবা রেলওয়ের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন আজাদ এই দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমার মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তার গলায়, মুখে আঘাতের চিহ্ন এবং মুখমণ্ডল রক্তাক্ত অবস্থায় ছিল। তার পরনে কোনও পোশাক ছিল না। মেলান্দহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ও পুলিশের ভাষ্যমতে, যদি সে প্যাথেডিন ইনজেকশন নিয়ে আত্মহত্যা করে থাকে তাহলে তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন থাকতো না। আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেনি।’

সংবাদ সম্মেলনে সুলতানার বাবা ও বোনএ সময় পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন, ডা. সুলতানার সাবেক স্বামী সাব্বির হোসেন বা পেশাগত শত্রুতার কারণে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। সংবাদ সম্মেলনে ডা. সুলতানা পারভীনের ছোট বোন মেরী সুলতানা ও বোনের স্বামী আসাদুল হক চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। ডা. সুলতানার বাড়ি রাজশাহী শহরের পোস্ট অফিস গলিতে।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ আগস্ট জামালপুরের মেলান্দহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক ভবনে ডা. সুলতানা পারভীনের নিজ কক্ষ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের পর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।


এখানে শেয়ার বোতাম