শনিবার, এপ্রিল ১৭
শীর্ষ সংবাদ

আগাম নির্বাচন দাবিতে স্লোভেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

এখানে শেয়ার বোতাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) মধ্য ইউরোপের দেশ স্লোভেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী মারজান সারেক বলেছেন, আজ সোমবার তিনি দেশটির পার্লামেন্টে তার পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে আগাম নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন। তার দাবি, পার্লামেন্টে সংখ্যালঘু হওয়ায় তার সরকার দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কোনো আইন প্রণয়ন করতে পারছে না।

দেশটির পাঁচ বামপন্থী দলের জোট গঠনের মাধ্যমে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ক্ষমতায় আসে মারজান সারেকের সরকার। পার্লামেন্টের ৯০ আসনের মধ্যে ওই জোটের আসন সংখ্যা মাত্র ৪৩টি। গত বছরের নভেম্বরে বিরোধী বামপন্থী দলের অনানুষ্ঠানিক সমর্থন প্রত্যাহারের পর পার্লামেন্টে বিল পাশে হিমশিম খেতে হচ্ছে সরকারকে।

দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের একটি ঐতিহাসিক বলকান অঞ্চলের দেশটির প্রধানমন্ত্রী সারেক এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘এই জোট নিয়ে আমি পার্লামেন্টে যে পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে যাচ্ছি, তাতে করে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করা সম্ভব নয়। আগাম নির্বাচনের মাধ্যমেই আমি তাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে সমর্থ হবো।’

প্রধানমন্ত্রীর এমন বিবৃতির আগে দেশটির জাতীয় সংবাদ সংস্থা এসটিএ এক প্রতিবেদনে মারজান সারেকের মন্ত্রিসভার অর্থমন্ত্রী আন্দ্রেজ বার্তোনচেলজের পদত্যাগের কথা জানায়। গত শুক্রবার অর্থমন্ত্রী আন্দ্রেজ এক বিবৃতি দিয়ে সারেকের এলএমএস এর প্রস্তাবিত একটি নতুন আইনের তার বিরোধিতা কথা ঘোষণা করে।

প্রস্তাবিত ওই আইন অনুযায়ী জাতীয় বাজেট দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সম্ভাব্য ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু অর্থমন্ত্রী আন্দ্রেজ বলেন, এটা কোনোভাবেই মেনে নেয়ার মতো বিষয় নয়।

বিশ্লেষকরা বলছেন, পার্লামেন্টে সবচেয়ে বৃহৎ আসনধারী বিরোধী কট্টর ডানপন্থী দল এসডিএস নতুন সরকার গঠনের চেষ্টা করছে। এই প্রচেষ্টা যদি ব্যর্থ হয় তাহলেই আগাম নির্বাচন হবে। প্রসঙ্গত, স্বাভাবিক হিসেবে দেশটির বর্তমান সরকারের মেয়াদ শেষে ২০২২ সালে নির্বাচন হওয়ার কথা।


এখানে শেয়ার বোতাম