রবিবার, জানুয়ারি ১৭

আগামীকাল দেশব্যাপী মানববন্ধন ও মানবপ্রাচীর সফল করুন : সাইফুল হক

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 36
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকার ও সংবিধান পরিপন্থী; এই সিদ্ধান্ত হঠকারি, দায়িত্বহীন ও দেশবিরোধী মন্তব্য করে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, বিজেএসসি’র দুর্নীতিবাজদের জন্য পাটকল বন্ধ হতে পারে না। তিনি রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল, পাট শ্রমিক ও পাটচাষীদের রক্ষায় আগামীকাল দেশব্যাপী মানববন্ধন ও মানবপ্রাচীর সফল করার আহবান জানান।

বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক আজ এক বিবৃতিতে বলেন, রাষ্ট্রায়াত্ব ২৫টি পাটকল বন্ধ করে দিয়ে সরকার অতীতের বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের অনুসৃত পথেই হাঁটছে। সরকারের এই সিদ্ধান্ত মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকার ও সংবিধান পরিপন্থী। মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকার ও সংবিধানে শিল্প উন্নয়নের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রায়াত্ব খাতকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। সমবায় ও ব্যক্তিখাতের উপরেই রাষ্ট্রায়াত্ব খাতকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশন (বিজেএসসি) এর সীমাহীন চুরি, দুর্নীতি, অনিয়ম দূর না করে এবং বিজেএসসি’র চিহ্নিত দুর্নীতিবাজ ও দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ না করে রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকলসমূহ বন্ধ করে দেয়া চরম হঠকারি, দুর্নীতি ও অনিয়ম দূর না করে এবং বিজেএসসি’র চিহ্নিত দুর্নীতিবাজ ও দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ না করে রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকলসমূহ বন্ধ করে দেয়া চরম হঠকারি, দায়িত্বহীন ও দেশবিরোধী তৎপরতার সামিল। ধারাবাহিক চুরি, দুর্নীতির সুযোগ করে দিয়ে পরিকল্পিতভাবেই রাষ্ট্রায়াত্ব পাটশিল্পকে লোকসান দেখানো হচ্ছে। পিপিপি’র নাম করে এখন এই ২৫টি পাটকল ৩০/৩৫ হাজার কোটি টাকার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিকে মুষ্টিমেয় লুটেরাদের হাতে তুলে দেবার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক বাজারে পাটজাত পণ্যের যখন ভাল বাজার এবং এই ক্ষেত্রে বাংলাদেশের যেখানে তুলনামূলক সুবিধা রয়েছে সেখানে দেশ ও জনগণের প্রতি দায়বদ্ধ কোন সরকার এই ধরনের গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে না। এই অশুভ তৎপরতা মাথাব্যাথার জন্য মাথা কেটে ফেলার সামিল।

তিনি ক্ষোভের সাথে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল বন্ধ ঘোষণার পর ইতিমধ্যে পাটের দাম ৫/৭ শত টাকা কমে গেছে। এই অবস্থায় সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাট পাচার হবার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। উপযুক্ত দাম না পেয়ে পাটচাষীরাও সর্বশান্ত হয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, মহামারী দুর্যোগে কর্মসংস্থান ধরে রাখা যেখানে প্রধান কর্তব্য সেখানে পাটশিল্পের স্থায়ী-অস্থায়ী মিলে ৫০ (পঞ্চাশ) সহ¯্রাধিক শ্রমিককে বেকার করে দেওয়া কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

বিবৃতিতে তিনি অনতিবিলম্বে পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে রাষ্ট্রায়াত্ব মালিকানায় পাটকলগুলোকে আধুনিকীকরণ করে পাটশিল্পে পুনরুজ্জীবন ঘটানোর আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে তিনি রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল করে পাটশিল্পের আধুনিকীকরণের দাবিতে আগামীকাল বামজোট আহুত দেশব্যাপী ‘মানববন্ধন-মানবপ্রাচীর’ গড়ে তোলার কর্মসূচি সফল করতে দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 36
    Shares