রবিবার, জানুয়ারি ২৪

অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ব্যয় বাড়বে বিলাসী পণ্যে

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপে বিপর্যস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকা ব্যয় ধরে ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট দিতে যাচ্ছে সরকার। বৃহস্পতিবার (১১ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

সংকটের মধ্যে বিশাল অঙ্কের বাজেটে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হচ্ছে ৩ লাখ ৮২ হাজার ১৬ কোটি টাকা। এর অর্থ জোগাড় করতে বিলাসী পণ্যে কর বাড়াতে যাচ্ছে সরকার।

১০০ টাকার মোবাইল রিচার্জে ৭৩ টাকার সেবা-

নতুন অর্থবছরের বাজেটে মোবাইলে সব ধরনের সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানো হচ্ছে। বর্তমানে ১০০ টাকা রিচার্জ কর ৭৮ টাকা ২৭ পয়সার সেবা পাওয়া যায়। বাকি ২২ টাকা ৭২ পয়সা ট্যাক্স-ভ্যাট হিসেবে সরকার পায়। এবারের বাজেটে সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর কারণে গ্রাহক ৭৩ টাকার সেবা পাবেন। বাকি ২৭ টাকা সরকার কর হিসেবে পাবে।

বাড়ছে গাড়ি রেজিস্ট্রেশন ফি বাড়ছে-

সিসিভেদে ব্যক্তিগত গাড়ি রেজিস্ট্রেশনে অগ্রিম আয়কর বাড়ানো হচ্ছে। ১৫০০ সিসির কম ক্ষমতাসম্পন্ন গাড়ির অগ্রিম কর ১৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা করা হচ্ছে। ১৫০০ থেকে ২০০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির কর ৩০ হাজার টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকা এবং ২০০০ থেকে ২৫০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ৫০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৫ হাজার টাকা করা হচ্ছে।

এছাড়া ২৫০০ থেকে ৩০০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির ৭৫ হাজার টাকা থেকে এক লাখ ২৫ হাজার টাকা, ৩০০০ থেকে ৩৫০০ সিসি পর্যন্ত গাড়ির এক লাখ থেকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ৩৫০০ সিসি বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন গাড়ির এক লাখ ২৫ হাজার টাকা থেকে ২ লাখ টাকা এবং মাইক্রোবাসের অগ্রিম কর ২০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০ হাজার টাকা করা হচ্ছে।

৫ কোটি টাকার বেশি থাকা ব্যাংক হিসাবে আবগারি শুল্ক বাড়ছে-

বড় লোকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের আবগারি শুল্ক বাড়ানো হচ্ছে। তবে ছোট সঞ্চয়কারী বা ব্যাংক আমানতধারীদের কর আগের মতো থাকছে। যেসব ব্যাংক অ্যাকাউন্টের স্থিতি বছরে ৫ কোটি টাকার বেশি সেসব অ্যাকাউন্টের আবগারি শুল্ক ২৫ হাজার টাকা দিতে হয়। এটা বাড়িয়ে প্রায় দ্বিগুণ করা হচ্ছে।

গার্মেন্টের উৎসে কর বাড়ছে-

করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত তৈরি পোশাক খাতের উৎসে করও বাড়ানো হচ্ছে। চলতি অর্থবছর রফতানিমুখী পোশাক শিল্পকে মোট রফতানি আয়ের বিপরীতে দশমিক ২৫ শতাংশ হারে উৎসে কর দিতে হতো। আগামী বাজেটে সেটি বাড়িয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ করা হচ্ছে। তবে পোশাক খাতের করপোরেট কর আগের অবস্থানেই রাখা হচ্ছে।

ভার্চুয়াল বিজ্ঞাপনে খরচ বাড়বে-

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক, ইউটিউব ইত্যাদি) বিজ্ঞাপনের ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ করা হয়। এবারের বাজেটে এ ধরনের বিজ্ঞাপনের ওপর ১০ শতাংশ হারে উৎসে কর আরোপ করা হচ্ছে। বিজ্ঞাপনের বিল পরিশোধের সময় ব্যাংককে ভ্যাট ও উৎসে কর কেটে রাখার নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

ধূমপায়ীদের বাড়তি কর দিতে হবে-

রাজস্ব আয় বাড়াতে প্রথাগতভাবে এবারও সিগারেটের মূলস্থর ও সম্পূরক শুল্ক বাড়ানো হচ্ছে। এতে সিগারেট ফুকতে ধূমপায়ীদের বাড়তি কর দিতে হবে। আর সরকার মোটা অঙ্কের রাজস্ব পাবে।

মিথ্যা ঘোষণা ধরা পড়লে জরিমানা-

আন্ডার ইনভয়েসিং-ওভার ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে অর্থপাচার রোধে আয়কর অধ্যাদেশে নতুন ধারা (১৬এইচ) যুক্ত করা হচ্ছে। এ ধারা অনুযায়ী, আয়কর রিটার্ন পর্যালোচনা করে পণ্য আমদানিতে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের আন্ডার ইনভয়েসিং বা ওভার ইনভয়েসিংয়ের প্রমাণ পাওয়া গেলে গোপনকৃত বা পাচারকৃত অর্থের ৫০ ভাগ জরিমানা আদায় করা হবে।


এখানে শেয়ার বোতাম