মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

অবিলম্বে খালেদাকে মুক্ত করার আহবান জাফরুল্লাহ চৌধুরীর

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দিন। তাকে ছেড়ে দিলে আপনার বেহেশত যাওয়ার পথ সুগম হবে। খোদা আপনাকে সওয়াব দেবেন।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল ও ত্রাণসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে জাফরুল্লাহ এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে ‘তারুণ্যের শক্তি কেন্দ্রীয় পরিষদ’ নামে একটি সংগঠন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‌‘প্রধান বিচারপতি বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে কারাগারে রেখেই হাজতি আসামির জামিন শুনানি করতে হবে। আজকে খালেদা জিয়া তো জেলখানায় নেই, উনি (করোনায়) আক্রান্ত হয়েছেন। দেশের জনগণ মনে করে খালেদা জিয়া যদি সুস্থ হয়ে ফিরে আসেন, তাহলে গণতন্ত্র মুক্তি পাবে। আজকে দেশবাসী তার দিকে তাকিয়ে আছে। আপনার (শেখ হাসিনা) উচিত হবে, রাজনৈতিক একজন ব্যক্তিকে তার নাগরিক অধিকার ফিরিয়ে দিয়ে তাকে মুক্ত করে দেয়া। আপনার কোনো জিঘাংসার কথা মনে না রেখে উচিৎ মানবিক শেখ হাসিনা হওয়া। দেশবাসী দেখতে চায় মানবিক শেখ হাসিনাকে। জালিম শেখ হাসিনাকে দেখতে চায় না।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আর দেরি না করে অনতিবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দিন। মানুষের বাড়ি বাড়ি বোরকা পরে গিয়ে যদি জিজ্ঞেস করেন, খালেদা জিয়াকে জেলে রাখব নাকি ছেড়ে দেব। দেখবেন, প্রতিটি মানুষ তাকে ছেড়ে দেয়ার কথা বলবে। খালেদা জিয়াকে ছেড়ে দিলে আপনার বেহেশত যাওয়ার পথ সুগম হবে। খোদা আপনাকে সওয়াব দেবেন। তা না হলে এই যে নামাজ পড়েন তা লোক দেখানো হবে। আর মৃত্যুর পরে আপনি আরও ধর্মপরায়ণ হয়ে যাবেন। গোয়েন্দা বাহিনীর কথা শুনবেন না। আমি জানি, গোয়েন্দা বাহিনী আপনার কানে কানে বলে খালেদা জিয়াকে ছাড়বেন না। কারণ, তাকে ছাড়লে আপনার গদি টলমল করবে।

তারুণ্যের শক্তি কেন্দ্রীয় পরিষদের আহ্বায়ক শওকত আজিজের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মোজাম্মেল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসন উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, কৃষকদলের নেতা মিয়া মো. আনোয়ার, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


এখানে শেয়ার বোতাম