শনিবার, ডিসেম্বর ৫

অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করতে যাওয়া পুলিশের ওপর হামলা

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 5
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বেদগর্ভ গ্রামে অপহৃত এক স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করতে গিয়ে অপহরণকারীদের হামলায় নারী কনস্টেবলসহ ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অপহরণকারী ইমন মোল্লাসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বরিশাল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের এসআই আরিফুল ইসলাম, নারী কনস্টেবল হাফিজা আক্তার ও ভোলার লালমোহন থানার কনস্টেবল মিরাজ হোসেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, গৌরনদী উপজেলার বেদগর্ভ গ্রামের ইমন মোল্লা, সিরাজ মোল্লা ও এনায়েত হোসেন মোল্লা।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের এসআই অহিদ মিয়া জানান, লালমোহন বালিকা বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনির এক ছাত্রীকে (১৪) গত ৯ সেপ্টেম্বর অপহরণ করা হয়। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ওইদিনই লালমোহন থানায় অভিযোগ করেন।

এ ঘটনায় তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় লালমোহন থানার এসআই মোশারফ হোসেনকে। গোপন সংবাদ ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় এসআই মোশারফ হোসেন জানতে পারেন অপহৃত স্কুলছাত্রীকে গৌরনদী উপজেলার বেদগর্ভ গ্রামের একটি বাড়িতে আটকে রাখা হয়েছে।

এসআই অহিদ মিয়া বলেন, অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকারীদের ধরতে এসআই মোশারফ হোসেন লালমোহন থানার পুলিশের একটি দল নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে গৌরনদীতে থানায় আসেন। এরপর গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে তারা বেদগর্ভ গ্রামে যান। পরে ইমন মোল্লার বাড়ি থেকে অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই বাড়ি থেকে পালিয়ে যান ইমন মোল্লা।

অপহৃত স্কুলছাত্রীকে নিয়ে ফেরার পথে ইমন মোল্লার নেতৃত্বে লাঠি নিয়ে ১০-১২ জনের একটি দল পুলিশের ওপর অর্তকিত হামলা চালায়। এতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়।

খবর পেয়ে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে অভিযান চালিয়ে অপহরণকারীসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে এবং আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এসআই অহিদ মিয়া আরও বলেন, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় লালমোহন থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখসহ আরও ৭/৮ জন অজ্ঞাতনামা আসামি করে গৌরনদী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 5
    Shares