বৃহস্পতিবার, মার্চ ৪
শীর্ষ সংবাদ

অনন্ত বিজয় হত্যা: তদন্ত কর্মকর্তাসহ দু’জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

এখানে শেয়ার বোতাম

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বিজ্ঞান লেখক অনন্ত বিজয় দাশ হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ দু’জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেছে আদালত। রোববার সিলেটের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মমিনুন নেসা এ সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

চাঞ্চল্যকর এই মামলার প্রথম তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক নুরুল আলম এবং সাংস্কৃতিক সংগঠক রজতকান্তি গুপ্ত আদালতে উপস্থিত হয়ে রোববার সাক্ষ্য প্রদান করেন।

এ নিয়ে এই মামলায় ৯জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হলো। মামলায় মোট ২৯ জনকে সাক্ষী করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় সিআইডি।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এমাদউল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন। তাকে সহায়তা করেন মনির উদ্দিন। তিনি জানান, আদালত আগামী ১ অক্টোবর সাক্ষ্যগ্রহণের পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১২ মে সিলেট নগরীর সুবিদবাজারে নিজ বাসার সামনে উগ্রবাদীরা কুপিয়ে অনন্ত বিজয় দাশকে হত্যা করে। এ ঘটনায় অনন্তর বড় ভাই রত্নেশ্বর দাশ বাদী হয়ে হয়ে নগরীর বিমানবন্দর থানায় মামলা দায়ের করেন।

দীর্ঘ তদন্ত শেষে ৬ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র প্রদান করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এজাহারভুক্ত আসামীরা হলেন- মান্নান ইয়াহিয়া, আবুল খয়ের রশিদ আহমদ, শফিউর রহমান ফারাবী, আবুল হোসেন, ফয়সল আহমদ ও হারুন অর রশিদ। এর মধ্যে মান্না ইয়াহিয়া কারাগারে আটক অবস্থায় মারা যান। আবুল খয়ের রশিদ আহমদ ও শফিউর রহমান ফারাবী কারান্তরীন এবং অপর আসামিরা পলাতক রয়েছেন।

সিলেট গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক অনন্ত বিজয় দাশ সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করে পূবালী ব্যাংকে কর্মজীবন শুরু করেন। সিলেটের জাউয়াবাজারে অবস্থিত পূবালী ব্যাংক শাখায় কর্মরত ছিলেন তিনি। ‘যুক্তি’ নামে বিজ্ঞান বিষয়ক একটি ছোটকাগজ সম্পাদনা করতেন অনন্ত।


এখানে শেয়ার বোতাম